Notice :
আমাদের সাইটে আপনাদের স্বাগতম
করোনায় বরিশালে ব্যতিক্রমি চেয়ারম্যান আমিনুল ইসলাম বাবুল

করোনায় বরিশালে ব্যতিক্রমি চেয়ারম্যান আমিনুল ইসলাম বাবুল

নিউজ ডেক্স: পৃথিবী এখন ক,ঠিন সময়ের মধ্য দিয়ে যাচ্ছে। প্রতিদিন মানুষের মৃ,ত্যুর সংখ্যা বাড়ছে। লক-ডাউনের কারণে সব কাজ ব,ন্ধ। খেয়ে না খেয়ে মানুষ দিন পার করছে। বাংলাদেশেও দিন দিন করোনা আ,ক্রান্তের সংখ্যা বেড়েই চলেছে। এক-দিকে যেমন এই মহা-মারী অন্য-দিকে ক্ষু,ধা।

আমাদের গ্রা,স করে ফেলতে চাইছে যখন এই দুই জিনিস তখন সরকার নানা,মুখী উদ্যোগ নিচ্ছে। এই উদ্যোগ অনেক,ক্ষেত্রেই বা,ধা-গ্র,স্ত হচ্ছে তৃণমূল পর্যায়ে। যখন দেশের ইউনিয়ন, উপজেলা জেলা পর্যায়ে চেয়ারম্যান-মেম্বাররা চাল চু,রিতে ব্যস্ত তখন কেউ কেউ ব্যতি,ক্রম হয়ে হা,জির হন। জানান দেন মানবিকতার। না হলে হয়তো মানবিকতা অ,দৃশ্য হয়ে যেত।

আর এমনই একজন জন-প্রতিনিধি, বরিশালের আগৈল,ঝরার বাগ্ধা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আমিনুল ইসলাম বাবুল। ক’দিন আগেই একজন করোনা-ভাইরা,সে আ,ক্রান্তের উপ-সর্গ নিয়ে মা,রা যান। এরপর তার লা,শ দা,ফনে কেউ এগিয়ে আসছিল না। শুধু তা নয়, ক,বরও খোঁ,ড়ার লোক নেই। নেমে গেলেন নিজেই ক,বর খুঁ,ড়তে।

জানা যায়, চেয়ারম্যান বাবুলের বক্তব্য অনুযায়ী, ‘স্বাস্থ্য অ,ধিদপ্তরের আওতায় বরিশাল কোয়ান্টামের একটি দল আসেন দা,ফনের জন্য। করোনা আ,ক্রান্ত ভয়ে কবর খনন করার জন্য আত্বীয় স্বজন, আপন জন এমন কি র,ক্তের সম্পর্কের কেউ কে শত চেষ্টা করেও নেওয়া যায়নি। আমার ইমানী দ্বায়িত্ব ও সামাজিক দ্বায়িত্ব-বোধ থেকে স্হানীয় আকুব্বার হাওলাদার ও পির মোহাম্মদ কে নিয়া ক,বর খ,নন কাজ শুরু করি। পরে এলাকার দুই যুবক কালা চান ও মাইনুল কে বললে আমাদের সাথে যোগ দেয়।’

অবশ্য পরে মৃ,ত সেই ব্যক্তির করোনা নে,গেটিভ এসেছিল। মা,রা যাওয়ার পর করোনা স,ন্দেহে নি,হতের আশ-পাশের বেশ কয়েকটি বাড়িকে লক-ডাউন করে দেওয়া হয়। এসময় নিজেই কাঁ,ধে কাঁ,ধে অনেকগুলো পরিবারের কাছে খাদ্য পৌঁছে দেন বাবুল চেয়ারম্যান।

তবে সরকারি ত্রাণ আসেনি। কিন্তু অ,নাহারী মানুষের মুখে খাবার তুলে দিতে হবে সেই চিওন্তায় বি,ভোর বাবুল। বলেন, ‘আমার পরিবারের পক্ষ থেকে কর্মহীন দিন-মজুর ও নিম্ন আয়ের লোকদের মধ্যে আপাতত দুই শত পরিবার কে খাদ্য সহয়তা দেওয়া হয়(১০ কেজি চাল,৩ কেজি আলু,১ কেজি ডাল,১ কেজি লবন,১ লিটার তেল,১ কেজি পেয়াজ ও একটি হুইল সাবান)। চেষ্টা করছি তালিকা অনুযায়ী সব ওয়ার্ড মেম্বার,স্হানীয় নেতা কর্মী ও যুব সমাজকে সাথে নিয়ে সবার ঘরে পৌঁছানো।’

নিজের পয়সা খরচ করে বুধবার এই ত্রাণ তিনি ঘরে ঘরে পৌঁছানো শুরু করেন। যখন চাল চু,রিতে চেয়ারম্যান-মেম্বাররা ব্যস্ত বাবুল চেয়ারম্যান একজন অনন্য দৃষ্টান্ত হয়ে এলেন। বি,পদের সময় তো মানুষের ভেতরের চেহারা চেনা যায়।

এখান থেকে শেয়ার দিন

Comments are closed.




© All rights reserved © 2019 agambarta24.com
Design BY NewsTheme