Notice :
আমাদের সাইটে আপনাদের স্বাগতম
নিজ মাঠে খেলতে অনড় পাকিস্তান, দ্বিধায় বিসিবি

নিজ মাঠে খেলতে অনড় পাকিস্তান, দ্বিধায় বিসিবি

খন থেকে নিজেদের হোম সিরিজগুলো আর দেশের বাইরে খেলতে চায় না পাকিস্তান। তবে তাইতো বাংলাদেশের বিপক্ষে আসন্ন টি-টোয়েন্টি এবং টেস্ট সিরিজ নিজ মাঠেই খেলতে অনড় পাকিস্তান। দেশটির ক্রিকেট বোর্ডের (পিসিবি) এক বিশেষ সূত্রে বুধবার (২৭ নভেম্বর) এমনটাই জানিয়েছে জিও নিউজ অনলাইন।

যদিও অনিশ্চয়তার মধ্যেই রয়েছে বাংলাদেশ দলের আসন্ন এ পাকিস্তান সফর। খেলোয়াড় এবং কোচিং স্টাফদের অনিচ্ছার কারণে পাকিস্তান সফরে নারাজ বাংলাদেশ। কিন্তু শেষ পর্যন্ত সফরটা হলেও তা কেবল টি-টোয়েন্টির মধ্যেই সীমাবদ্ধ থাকতে পারে। পাকিস্তান সফরে যেতে চাইলেও সেখানে লম্বা সময় অবস্থান নিয়ে দলের মধ্যে উদ্বেগ রয়েছে। 

বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) সূত্রে দিনকয়েক আগে এমন খবর দেয় ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস। ওই খবর প্রকাশের পর এবার পিসিবির অনড় থাকার খবর জানা গেল।

তিনটি টি-টোয়েন্টি ও দুই টেস্টের সিরিজ খেলতে ২০২০ সালের জানুয়ারিতে পাকিস্তানে যাওয়ার সূচি রয়েছে বাংলাদেশের। তবে এরমধ্যে টেস্ট সিরিজটি আবার বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের অংশ। সে ক্ষেত্রে পাকিস্তান সফরে না গেলে গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্ট হারাবে বাংলাদেশ।

বিসিবির এক কর্মকর্তার বরাত দিয়ে ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস জানায়, বাংলাদেশ দল যদি পাকিস্তান সফরে না যায়, তাহলে পিসিবিকে একটি নিরপেক্ষ ভেন্যুতে সিরিজ আয়োজন করার জন্য অনুরোধ জানাবে বিসিবি এবং তারপরও পিসিবি যদি অনড় থাকে, আইসিসি বিষয়টি বিবেচনা করবে বলেই আশা বিসিবির।

তবে পিসিবির মুখপাত্র জিও নিউজকে বলেন, বিদেশের মাটিতে আর কোনও হোম সিরিজ না খেলার জন্য আমরা আমাদের নীতিতে অনড় আছি। বাংলাদেশের আসন্ন সফর সম্পর্কিত প্রাথমিক পরিকল্পনা তাদের কাছে (বিসিবি) পাঠানো হয়েছে। শুধু ভেন্যু এবং তারিখগুলো এখনও চূড়ান্ত হয়নি।

জানা গেছে, সিরিজের প্রথম অংশে অনুষ্ঠিত হবে দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজটি। তবে তারপরই রয়েছে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিডিউল। জানুয়ারি থেকে ফেব্রুয়ারির মধ্যে হওয়ার কথা বাংলাদেশ-পাকিস্তানের এই সিরিজ।

বিসিবির মতে, এই সফর হলেও তা কেবল টি-টোয়েন্টিতেই সীমাবদ্ধ থাকতে পারে। এখনও সফর নিয়ে কোনও কিছু প্রকাশ করেনি বিসিবি এবং যার ফলে অনিশ্চয়তা থেকেই যাচ্ছে।

গত বছর নিউজিল্যান্ড সফরের সময় ভয়াবহ সন্ত্রাসী হামলা থেকে অল্পের জন্য রক্ষা পায় বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। মূলত তারপর থেকে বিদেশ সফরে আরও বেশি সতর্ক বিসিবি।

বিসিবির কর্মকর্তা ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসকে বলেন, খেলোয়াড়রা তিন সপ্তাহের বেশি সময় ধরে ট্যুরের জন্য পাকিস্তানে যেতে রাজি নয়। তবে কোচিং স্টাফরা এরই মধ্যে তাদের অসন্তুষ্টির কথা প্রকাশ করেছেন। তিনটি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ ঠিক আছে, কারণ সেটা সাত-আট দিনের মধ্যে শেষ হবে। তবে তারা সেখানে ২১ দিনের (তিন সপ্তাহ) জন্য অবস্থান করতে চান না।

তবে পিসিবি বলছে, সিরিজের অর্ধাংশ এক জায়গায় এবং বাকি অংশ আরেক জায়গায় খেলা সম্ভব নয়। এ নিয়ে আর ভাবাও সম্ভব নয়, কারণ যদি তেমনটা হয়, তাহলে পিএসএল ও ভবিষ্যতে যে কোনও হোম সিরিজ পাকিস্তানে খেলার ক্ষেত্রে নেতিবাচক প্রভাব ফেলবে।

দেশটির বোর্ড আরও বলছে, ‘পিসিবি মনে করছে যে, বাংলাদেশ পুরুষ দলের এখন পাকিস্তান সফরে কোনও সমস্যা নেই। কারণ সেদেশ থেকে দুটি দল ইতোমধ্যে পাকিস্তান সফর করেছে।’

প্রসঙ্গত, সম্প্রতি বাংলাদেশের নারী ক্রিকেট দল এবং অনূর্ধ্ব-১৬ দল পাকিস্তান সফর করে। নারীদের ওয়ানডে এবং টি-টোয়েন্টি সিরিজ হয় লাহোরের গাদ্দাফি স্টেডিয়ামে, আর অনূর্ধ্ব-১৬ দলের ম্যাচগুলো হয় রাওয়ালপিণ্ডিতে এবং এই সিরিজের আগে বিসিবির নিরাপত্তা প্রতিনিধি দল পাকিস্তান সফর করে।

২০০৯ সালে লাহোরে শ্রীলঙ্কা টিম বাসে সন্ত্রাসী হামলার পর প্রায় দশ বছর পাকিস্তান সফর থেকে দূরে থাকে ক্রিকেট দলগুলো। ফলে সম্প্রতি সেদেশ সফর করেছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও শ্রীলঙ্কা। গত মাসেই সেখানে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলেছে লঙ্কানরা। ডিসেম্বরে দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজ খেলতেও পাকিস্তান যাওয়ার কথা রয়েছে তাদের।

এনএস/

এখান থেকে শেয়ার দিন

Comments are closed.




© All rights reserved © 2019 agambarta24.com
Design BY NewsTheme