Notice :
আমাদের সাইটে আপনাদের স্বাগতম
বাংলাদেশে করোনা-ভ্যাকসিন ট্রায়ালের অনুমতি পেল চীন

বাংলাদেশে করোনা-ভ্যাকসিন ট্রায়ালের অনুমতি পেল চীন

নিউজ ডেক্স: চীনের সঙ্গে আলোচনার ভিত্তিতে চায়না সিনোব্যাক কোম্পানির ভ্যা’কসিনের ট্রায়াল-করতে বাংলাদেশ অনুমতি দিয়েছে বলে  স্বাস্থ্য’মন্ত্রী জাহিদ মালেক । জানা যায়, বৃহস্পতিবার (২৭ আগস্ট) সাংবাদিকদের এই তথ্য জানান তিনি।

এছাড়াও এই বিষয়ে  তিনি আরো বলেন, যারা স্বেচ্ছায় করোনা-ভ্যাকসিনের ট্রায়াল বাংলাদেশে করতে আগ্রহী হবে তাদেরকেই অনুমতি দেয়া হবে। তিনি আরো বলেন, তবে ডিসেম্বর-জানুয়ারির আগে কোন ভ্যা’কসিন বাজারে আসবে না। করোনার-ভ্যাকসিন পেতে বিশ্ব-সংস্থার কাছে বাংলাদেশ জুলাই মাসে আবেদন করেছে।

যেসব হাসাপতালের স্বাস্থ্য-কর্মীদের ওপর ট্রায়াল হবে সেগুলো হলো: ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ইউনিট-২, ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল বার্ন ইউনিট-১, মুগদা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, কুর্মিটোলা-জেনারেল হাসপাতাল, হলি ফ্যামিলি রেড ক্রিসেন্ট মেডিকেল-কলেজ হাসপাতাল, কুয়েত-বাংলাদেশ ফ্রেন্ড’শিপ হাসপাতাল এবং ঢাকা মহা’নগর হাসপাতাল।

তবে হাসপাতালগুলোর ৪ হাজার ২০০ কর্মী এই পরীক্ষার আওতায় থাকবেন। সবার শরীরেরই ভ্যা’কসিন প্রয়োগ হবে। তবে করোনার-ভ্যা’কসিন ‘করোনা-ভেক’ প্রয়োগ হবে তাদের অর্ধেক ২ হাজার ১০০ জনের ওপর। বাকি ২ হাজার ১০০ কর্মীকে নির’পেক্ষ কোনো ভ্যা’কসিন দেয়া হবে।

কিন্তু তাদের কেউই জানবেন না কার শরীরে করোনা-ভ্যাকসিন আর কার শরীরে অন্য ভ্যা’কসিন। নির্দিষ্ট সময় পরে এর কার্য-কারিতা বোঝা যাবে। করোনা-ভ্যাকসিনের প্রভাব এবং যাদের দেয়া হয়নি তাদের অবস্থা তুলনা করা হবে।

এছাড়াও এই ট্রায়ালে মোট ১৮ মাস সময় লাগবে৷ সব প্রক্রিয়া শেষ করে ৩ সপ্তাহের মধ্যে ট্রায়ালের কাজ শুরু হতে পারে বলে গণ-মাধ্যমকে জানিয়েছেন বি.এম.আর.সি-র পরিচালক মাহমুদ উজ জাহান। তবে সেটা নির্ভর করছে আইসিডিডিআর,বি-এর ওপর।

এখান থেকে শেয়ার দিন

Comments are closed.




© All rights reserved © 2019 agambarta24.com
Design BY NewsTheme